Menu |||

কেয়ামত দিয়ে যার শুরু

কেয়ামত ঘটিয়ে হয়েছিলো শুরু! কেয়ামতই তো! ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবির মাধ্যমে সালমান শাহ যে সোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন, তাতে এটাকে ‘কেয়ামত’ বললে বেশি হবে না। প্রথম বলেই যাকে বলে ছক্কা! তার ছবি নিয়ে কথা বললেই চলে আসে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। এর মাধ্যমেই রাতারাতি দর্শকদের হৃদয় জয় করেন তিনি। এরপর একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়ে অল্প সময়ে পরিণত হন স্বপ্নের নায়কে। আজও যিনি রূপালি পর্দার যুবরাজ হয়ে বেঁচে আছেন হৃদয়ে হৃদয়ে।

সালমান মানেই ছিলেন উন্মাদনা। দেশীয় চলচ্চিত্রে ধূমকেতু হয়েই যেন হাজির হয়েছিলেন তিনি। তার শুরুটা হয়েছিল ১৯৯৩ সালে। মাত্র তিন বছরে তিনি অভিনয় করেন ২৭টি ছবিতে। প্রতিটি ছবি দেখতেই ঢল নেমেছে দর্শকের। ফলে বেশিরভাগই ব্যবসায়িক দিক থেকে হয়েছে সফল। আচার-আচরণ, চলন-বলন ও পোশাক-পরিচ্ছদে তিনি ছিলেন আধুনিক যুবকের উদাহরণ। তার রুচি, অভিব্যক্তি, বাচনভঙ্গি, বৈচিত্রময় ও আকর্ষণীয় দেহসজ্জা, সামগ্রিক আবেদন- সবই ছিলো যুগোপযোগী।

ব্যক্তিজীবনে সালমান ছিলেন আবেগপ্রবণ মানুষ। তার কথায় থাকতো আহ্লাদ। মানুষ হিসেবে তিনি ছিলেন চমৎকার। কোথাও বেড়াতে গেলে সহশিল্পীদের জন্যও জামা, জুতা-সহ নানা উপহার নিয়ে আসতেন। সহশিল্পী কী পোশাক পরছেন, তার সঙ্গে মিলিয়ে নিজের পোশাক বাছাই করতেন। মাঝে মধ্যে কোনো সহশিল্পীর জ্বর শুনলে ফল নিয়ে হাজির হয়ে যেতেন তার বাসায়।
salman
বেঁচে থাকলে হয়তো প্রতি বছর ৬ সেপ্টেম্বরের প্রাক্কালে নিজেকে নিয়ে নানারকম স্মৃতিময় প্রতিবেদন দেখতেন না সালমান শাহ! দেখতে হতো না। ১৯ সেপ্টেম্বর জন্মদিনে হয়তো দেখতেন। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর মাত্র ২৬ বছর বয়সে দপ করে নিভে গেলো তার জীবনপ্রদীপ। এই আকস্মিক মৃত্যুর খবর পেয়ে গোটা দেশই হয়ে পড়েছিলো স্তম্ভিত। সেই বিষাদ কাটেনি গত ১৯ বছরেও। তার হাসিমাখা মুখটা সবার মনে গেঁথে থাকবে চিরদিন। শুধু প্রয়াণ দিবস নয়, সারাবছরই তাকে স্মরণ করেন ভক্তরা। তার মৃত্যু দর্শকদের মধ্যে যে শোকের ছায়া বিস্তার করেছে তা বিস্ময়কর। নজিরবিহীন। প্রিয় নায়কের মৃত্যুর ঘটনায় শোকে দুঃখে আত্মহত্যার ঘটনাও ঘটেছিলো। এ দেশে কেনো, সব দেশের চলচ্চিত্র ইতিহাসেই এমনটা হওয়ার কথা শোনা গেছে খুব কম।

সালমানের হাঁপানির সমস্যা ছিলো। তবুও খুব ধূমপান করতেন। নিজের ব্যাপারে তিনি ছিলেন আগাগোড়া উদাসীন। তবে বোহেমিয়ান বলা যাবে না। বাউন্ডুলেও না। ভালোই তো চলছিলো সব। কথা নেই বার্তা নেই, হঠাৎ একদিন গায়েব হয়ে গেলেন সালমান! এমন জায়গায় গেলেন, যেখান থেকে ফেরে না কেউ। টিভি চ্যানেলগুলো এখনও সালমানের ছবিগুলো দেখায়। নতুন প্রজন্মের মধ্যেও তার কাজের প্রতি আগ্রহ লক্ষণীয়। হবেই বা না কেনো, তিনি যে চিরসবুজ!

আমাদের কাছে সালমান এক দীর্ঘশ্বাসের নাম। তিনি যা দেখিয়েছেন, তাতে তাকে কি ভুলে থাকা যায়? তাই আজও তাকে হারানোর ব্যথায় জর্জরিত চলচ্চিত্র শিল্প। তার প্রস্থানে তৈরি হওয়া শুন্যতা পূরণ হয়নি, হয়তো হবেও না। এজন্যই চাইলেও তাকে ভোলা যাবে না। সালমানকে দর্শকরা খুঁজে যায় বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসের পাতায়। হয়তো আকাশে, পাহাড়ে, নদীতে, সাগরে। তিনি থাকেন সবার আনন্দ অশ্রুতে, অন্তরে অন্তরে। ভালো থাকুন সালমান শাহ। আপনাকে অগ্রদৃষ্টি  পরিবারের শ্রদ্ধা।

সালমান শাহ অভিনীত ছবি
কেয়ামত থেকে কেয়ামত (২৫ মার্চ, ১৯৯৩)
তুমি আমার (২২ মে, ১৯৯৪)
অন্তরে অন্তরে (১০ জুন, ১৯৯৪)
সুজন সখী (১২ আগস্ট, ১৯৯৪)
বিক্ষোভ (৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৪)
স্নেহ (১৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৪)
প্রেমযুদ্ধ (২৩ ডিসেম্বর, ১৯৯৪)
কন্যাদান (৩ মার্চ, ১৯৯৫)
দেনমোহর (৩ মার্চ, ১৯৯৫)
স্বপ্নের ঠিকানা (১১ মে, ১৯৯৫)
আঞ্জুমান (১৮ আগস্ট, ১৯৯৫)
salman
মহামিলন (২২ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৫)
আশা ভালোবাসা (১ ডিসেম্বর, ১৯৯৫)
বিচার হবে (২১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৬)
এই ঘর এই সংসার (৫ এপ্রিল, ১৯৯৬)
প্রিয়জন (১৪ জুন, ১৯৯৬)
তোমাকে চাই (২১ জুন, ১৯৯৬)
স্বপ্নের পৃথিবী (১২ জুলাই, ১৯৯৬)
সত্যের মৃত্যু নাই (১৩ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬)
জীবন সংসার (১৮ অক্টোবর, ১৯৯৬)

মায়ের অধিকার (৬ ডিসেম্বর, ১৯৯৬)
চাওয়া থেকে পাওয়া (২০ ডিসেম্বর, ১৯৯৬)
প্রেম পিয়াসী (১৮ এপ্রিল, ১৯৯৭)
স্বপ্নের নায়ক (৪ জুলাই, ১৯৯৭)
শুধু তুমি (১৮ জুলাই, ১৯৯৭)
আনন্দ অশ্রু (১ আগস্ট, ১৯৯৭)
বুকের ভেতর আগুন (৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৭)
salman
একনজরে
প্রকৃত নাম: শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন
পর্দা নাম: সালমান শাহ
জন্ম: ১৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৭০
বাবা: কমর উদ্দিন চৌধুরী
মা: নীলা চৌধুরী
সহধর্মিণী: সামিরা
প্রথম চলচ্চিত্র: কেয়ামত থেকে কেয়ামত
শেষ ছবি: বুকের ভেতর আগুন
প্রথম নায়িকা: মৌসুমী
সর্বাধিক ছবির নায়িকা: শাবনূর (১৪টি)
মোট ছবি: ২৭টি
বিজ্ঞাপনচিত্র: মিল্ক ভিটা, জাগুয়ার, কেডস, গোল্ডস্টার টি, কোকাকোলা, ফানটা
ধারাবাহিক নাটক: পাথর সময়, ইতিকথা
একক নাটক: আকাশ ছোঁয়া, দোয়েল, সব পাখি ঘরে ফেরে, সৈকতে সারস, নয়ন, স্বপ্নের পৃথিবী
মৃত্যু: ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬
salman_shah

Facebook Comments Box

সাম্প্রতিক খবর:

কুয়েতে ষাটোর্ধ নন-গ্রাজুয়েট প্রবাসীদের রেসিডেন্সি নবায়ন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত ভুল
কুয়েতে ওসমানী স্পোর্টিং ক্লাবের গৌরবোজ্জ্বল জয়
৫৫ ডলারে চাঁদে জমি কেনার দাবি সাতক্ষীরার দুই তরুণের
দেশে আটকে পড়া প্রবাসীদের আমিরাতে ফেরার সুযোগ
শাহ্‌ আব্দুল করিম স্মৃতি পরিষদ কুয়েতের পক্ষ থেকে প্রবাসী দুই গুণীজনকে সংবর্ধনা
বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেবে মরিশাস
আফগানিস্তানে ৩১ মিলিয়ন ডলারের জরুরি সহায়তা দিচ্ছে চীন
৩ বছরেও বিচার হয়নি কুয়েত প্রবাসী সংগঠক আহাদ হত্যাকাণ্ডের
বাংলাদেশ সহ ৬ ঝুঁকিপূর্ণ দেশ থেকে কুয়েতে ফেরার সুযোগ
কুয়েতে নিহত ৩ প্রবাসীর মরদেহ দ্রুত প্রেরণ,দূতাবাসের ভূমিকায় সন্তুষ্ট প্রবাসীরা

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» “কুয়েতে এক্সচেঞ্জ কোং (বিডি)এমপ্লয়িজ অরগানাইজেশান কমিটির আত্মপ্রকাশ

» কুয়েতে ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে আনজুমানে আল-ইসলাহ্ এর আলোচনা ও মিলাদ মাহফিল

» বৃদ্ধি হোক রোগ প্রতিরোধ শক্তি

» পিঁপড়া অনুকরণীয় প্রাণী

» বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদ কুয়েতের সংবর্ধনা ও মতবিনিময় সভা

» কুয়েত আওয়ামীলীগ সভাপতির আশু রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল

» কুয়েতে ষাটোর্ধ নন-গ্রাজুয়েট প্রবাসীদের রেসিডেন্সি নবায়ন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত ভুল

» কুয়েত আওয়ামীলীগ এর উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিন পালন

» কুয়েতে ওসমানী স্পোর্টিং ক্লাবের গৌরবোজ্জ্বল জয়

» প্রবাসে পরবাসের অনুভূতি – সাব্বির আহমেদ

Agrodristi Media Group

Advertising,Publishing & Distribution Co.

Editor in chief & Agrodristi Media Group’s Director. AH Jubed
Legal adviser. Advocate Musharrof Hussain Setu (Supreme Court,Dhaka)
Editor in chief Health Affairs Dr. Farhana Mobin (Square Hospital, Dhaka)
Social Welfare Editor: Rukshana Islam (Runa)

Head Office

Mahrall Commercial Complex. 1st Floor
Office No.13, Mujamma Abbasia. KUWAIT
Phone. 00965 65535272
Email. agrodristi@gmail.com / agrodristitv@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

কেয়ামত দিয়ে যার শুরু

কেয়ামত ঘটিয়ে হয়েছিলো শুরু! কেয়ামতই তো! ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবির মাধ্যমে সালমান শাহ যে সোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন, তাতে এটাকে ‘কেয়ামত’ বললে বেশি হবে না। প্রথম বলেই যাকে বলে ছক্কা! তার ছবি নিয়ে কথা বললেই চলে আসে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। এর মাধ্যমেই রাতারাতি দর্শকদের হৃদয় জয় করেন তিনি। এরপর একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়ে অল্প সময়ে পরিণত হন স্বপ্নের নায়কে। আজও যিনি রূপালি পর্দার যুবরাজ হয়ে বেঁচে আছেন হৃদয়ে হৃদয়ে।

সালমান মানেই ছিলেন উন্মাদনা। দেশীয় চলচ্চিত্রে ধূমকেতু হয়েই যেন হাজির হয়েছিলেন তিনি। তার শুরুটা হয়েছিল ১৯৯৩ সালে। মাত্র তিন বছরে তিনি অভিনয় করেন ২৭টি ছবিতে। প্রতিটি ছবি দেখতেই ঢল নেমেছে দর্শকের। ফলে বেশিরভাগই ব্যবসায়িক দিক থেকে হয়েছে সফল। আচার-আচরণ, চলন-বলন ও পোশাক-পরিচ্ছদে তিনি ছিলেন আধুনিক যুবকের উদাহরণ। তার রুচি, অভিব্যক্তি, বাচনভঙ্গি, বৈচিত্রময় ও আকর্ষণীয় দেহসজ্জা, সামগ্রিক আবেদন- সবই ছিলো যুগোপযোগী।

ব্যক্তিজীবনে সালমান ছিলেন আবেগপ্রবণ মানুষ। তার কথায় থাকতো আহ্লাদ। মানুষ হিসেবে তিনি ছিলেন চমৎকার। কোথাও বেড়াতে গেলে সহশিল্পীদের জন্যও জামা, জুতা-সহ নানা উপহার নিয়ে আসতেন। সহশিল্পী কী পোশাক পরছেন, তার সঙ্গে মিলিয়ে নিজের পোশাক বাছাই করতেন। মাঝে মধ্যে কোনো সহশিল্পীর জ্বর শুনলে ফল নিয়ে হাজির হয়ে যেতেন তার বাসায়।
salman
বেঁচে থাকলে হয়তো প্রতি বছর ৬ সেপ্টেম্বরের প্রাক্কালে নিজেকে নিয়ে নানারকম স্মৃতিময় প্রতিবেদন দেখতেন না সালমান শাহ! দেখতে হতো না। ১৯ সেপ্টেম্বর জন্মদিনে হয়তো দেখতেন। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর মাত্র ২৬ বছর বয়সে দপ করে নিভে গেলো তার জীবনপ্রদীপ। এই আকস্মিক মৃত্যুর খবর পেয়ে গোটা দেশই হয়ে পড়েছিলো স্তম্ভিত। সেই বিষাদ কাটেনি গত ১৯ বছরেও। তার হাসিমাখা মুখটা সবার মনে গেঁথে থাকবে চিরদিন। শুধু প্রয়াণ দিবস নয়, সারাবছরই তাকে স্মরণ করেন ভক্তরা। তার মৃত্যু দর্শকদের মধ্যে যে শোকের ছায়া বিস্তার করেছে তা বিস্ময়কর। নজিরবিহীন। প্রিয় নায়কের মৃত্যুর ঘটনায় শোকে দুঃখে আত্মহত্যার ঘটনাও ঘটেছিলো। এ দেশে কেনো, সব দেশের চলচ্চিত্র ইতিহাসেই এমনটা হওয়ার কথা শোনা গেছে খুব কম।

সালমানের হাঁপানির সমস্যা ছিলো। তবুও খুব ধূমপান করতেন। নিজের ব্যাপারে তিনি ছিলেন আগাগোড়া উদাসীন। তবে বোহেমিয়ান বলা যাবে না। বাউন্ডুলেও না। ভালোই তো চলছিলো সব। কথা নেই বার্তা নেই, হঠাৎ একদিন গায়েব হয়ে গেলেন সালমান! এমন জায়গায় গেলেন, যেখান থেকে ফেরে না কেউ। টিভি চ্যানেলগুলো এখনও সালমানের ছবিগুলো দেখায়। নতুন প্রজন্মের মধ্যেও তার কাজের প্রতি আগ্রহ লক্ষণীয়। হবেই বা না কেনো, তিনি যে চিরসবুজ!

আমাদের কাছে সালমান এক দীর্ঘশ্বাসের নাম। তিনি যা দেখিয়েছেন, তাতে তাকে কি ভুলে থাকা যায়? তাই আজও তাকে হারানোর ব্যথায় জর্জরিত চলচ্চিত্র শিল্প। তার প্রস্থানে তৈরি হওয়া শুন্যতা পূরণ হয়নি, হয়তো হবেও না। এজন্যই চাইলেও তাকে ভোলা যাবে না। সালমানকে দর্শকরা খুঁজে যায় বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসের পাতায়। হয়তো আকাশে, পাহাড়ে, নদীতে, সাগরে। তিনি থাকেন সবার আনন্দ অশ্রুতে, অন্তরে অন্তরে। ভালো থাকুন সালমান শাহ। আপনাকে অগ্রদৃষ্টি  পরিবারের শ্রদ্ধা।

সালমান শাহ অভিনীত ছবি
কেয়ামত থেকে কেয়ামত (২৫ মার্চ, ১৯৯৩)
তুমি আমার (২২ মে, ১৯৯৪)
অন্তরে অন্তরে (১০ জুন, ১৯৯৪)
সুজন সখী (১২ আগস্ট, ১৯৯৪)
বিক্ষোভ (৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৪)
স্নেহ (১৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৪)
প্রেমযুদ্ধ (২৩ ডিসেম্বর, ১৯৯৪)
কন্যাদান (৩ মার্চ, ১৯৯৫)
দেনমোহর (৩ মার্চ, ১৯৯৫)
স্বপ্নের ঠিকানা (১১ মে, ১৯৯৫)
আঞ্জুমান (১৮ আগস্ট, ১৯৯৫)
salman
মহামিলন (২২ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৫)
আশা ভালোবাসা (১ ডিসেম্বর, ১৯৯৫)
বিচার হবে (২১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৬)
এই ঘর এই সংসার (৫ এপ্রিল, ১৯৯৬)
প্রিয়জন (১৪ জুন, ১৯৯৬)
তোমাকে চাই (২১ জুন, ১৯৯৬)
স্বপ্নের পৃথিবী (১২ জুলাই, ১৯৯৬)
সত্যের মৃত্যু নাই (১৩ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬)
জীবন সংসার (১৮ অক্টোবর, ১৯৯৬)

মায়ের অধিকার (৬ ডিসেম্বর, ১৯৯৬)
চাওয়া থেকে পাওয়া (২০ ডিসেম্বর, ১৯৯৬)
প্রেম পিয়াসী (১৮ এপ্রিল, ১৯৯৭)
স্বপ্নের নায়ক (৪ জুলাই, ১৯৯৭)
শুধু তুমি (১৮ জুলাই, ১৯৯৭)
আনন্দ অশ্রু (১ আগস্ট, ১৯৯৭)
বুকের ভেতর আগুন (৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৭)
salman
একনজরে
প্রকৃত নাম: শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন
পর্দা নাম: সালমান শাহ
জন্ম: ১৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৭০
বাবা: কমর উদ্দিন চৌধুরী
মা: নীলা চৌধুরী
সহধর্মিণী: সামিরা
প্রথম চলচ্চিত্র: কেয়ামত থেকে কেয়ামত
শেষ ছবি: বুকের ভেতর আগুন
প্রথম নায়িকা: মৌসুমী
সর্বাধিক ছবির নায়িকা: শাবনূর (১৪টি)
মোট ছবি: ২৭টি
বিজ্ঞাপনচিত্র: মিল্ক ভিটা, জাগুয়ার, কেডস, গোল্ডস্টার টি, কোকাকোলা, ফানটা
ধারাবাহিক নাটক: পাথর সময়, ইতিকথা
একক নাটক: আকাশ ছোঁয়া, দোয়েল, সব পাখি ঘরে ফেরে, সৈকতে সারস, নয়ন, স্বপ্নের পৃথিবী
মৃত্যু: ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬
salman_shah

Facebook Comments Box

সাম্প্রতিক খবর:

কুয়েতে ষাটোর্ধ নন-গ্রাজুয়েট প্রবাসীদের রেসিডেন্সি নবায়ন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত ভুল
কুয়েতে ওসমানী স্পোর্টিং ক্লাবের গৌরবোজ্জ্বল জয়
৫৫ ডলারে চাঁদে জমি কেনার দাবি সাতক্ষীরার দুই তরুণের
দেশে আটকে পড়া প্রবাসীদের আমিরাতে ফেরার সুযোগ
শাহ্‌ আব্দুল করিম স্মৃতি পরিষদ কুয়েতের পক্ষ থেকে প্রবাসী দুই গুণীজনকে সংবর্ধনা
বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেবে মরিশাস
আফগানিস্তানে ৩১ মিলিয়ন ডলারের জরুরি সহায়তা দিচ্ছে চীন
৩ বছরেও বিচার হয়নি কুয়েত প্রবাসী সংগঠক আহাদ হত্যাকাণ্ডের
বাংলাদেশ সহ ৬ ঝুঁকিপূর্ণ দেশ থেকে কুয়েতে ফেরার সুযোগ
কুয়েতে নিহত ৩ প্রবাসীর মরদেহ দ্রুত প্রেরণ,দূতাবাসের ভূমিকায় সন্তুষ্ট প্রবাসীরা


এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



আজকের দিন-তারিখ

  • শনিবার (ভোর ৫:১৯)
  • ২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
  • ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)

Exchange Rate

Exchange Rate: EUR

সর্বশেষ খবর



Agrodristi Media Group

Advertising,Publishing & Distribution Co.

Editor in chief & Agrodristi Media Group’s Director. AH Jubed
Legal adviser. Advocate Musharrof Hussain Setu (Supreme Court,Dhaka)
Editor in chief Health Affairs Dr. Farhana Mobin (Square Hospital, Dhaka)
Social Welfare Editor: Rukshana Islam (Runa)

Head Office

Mahrall Commercial Complex. 1st Floor
Office No.13, Mujamma Abbasia. KUWAIT
Phone. 00965 65535272
Email. agrodristi@gmail.com / agrodristitv@gmail.com

Bangladesh Office

Director. Rumi Begum
Adviser. Advocate Koyes Ahmed
Desk Editor (Dhaka) Saiyedul Islam
44, Probal Housing (4th floor), Ring Road, Mohammadpur,
Dhaka-1207. Bangladesh
Contact: +8801733966556 / +8801920733632

Email Address

agrodristi@gmail.com, agrodristitv@gmail.com

Licence No.

MC- 00158/07      MC- 00032/13

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com
error: দুঃখিত! অনুলিপি অনুমোদিত নয়।